Friday, July 23, 2021

টগবগ টগবগ ঘোড়া ছুটিয়ে#Togbog Togbog ghora chutiye টকবক টকবক ঘোড়া

 

 কথা - মিল্টু ঘোষ সুর - হেমন্ত মুখোপাধ্যায় 

 টগবগ টগবগ টগবগ টগবগ ঘোড়া ছুটিয়ে 

ঝিলমিল ঝিলমিল ঝিলমিল ঝিলমিল নিশান উড়িয়ে ছোট্ট খোকন যাচ্ছে, হাতে খোলা তলোয়ার --- দৈত্য দানব যত আছো সবাই হুঁশিয়ার || 

রূপবতী রাজকন্যে বন্দী যেখানে তেপান্তরের মাঠ পেরিয়ে চলছে সেখানে ; লক্ষ দানব দিনে রাতে আছে পাহারায়, তাদের সাথে যুদ্ধ করে মানবে না সে হার || 

স্বপ্নে দেখা কোথায় সে যে ছিল অজানা সোনার দাঁড়ে হীরের পাখি দিল ঠিকানা | যেই না খোকন হাজির হলো ঘোড়ার পিঠে চড়ে, লক্ষ দানব ছুটে এলো মারতে তাকে ঘিরে | এক এক করে মেরে তাদের তলোয়ারের ঘায় বন্দিনী সেই রাজকন্যে করল সে উদ্ধার ||

ঘুম পাড়ানী ঘুমের পরী বাচ্চাদের জন্য ৩০টি জনপ্রিয় ঘুমপাড়ানি গান | 30 Popular Bengali Lullaby With Lyrics

 

শিশুদের ঘুমপাড়ানি গান শোনানোর উপকারিতা :

১. মা ও সন্তানের সম্পর্ক গভীর হয়

একটি শিশু সবার প্রথম তার মায়ের আওয়াজ চিনতে শেখে। বিশেষজ্ঞদের মতে ঘুমপাড়ানি গান এক্ষেত্রে বাচ্চাদের ভীষণভাবে সাহায্য করে। মা যখন তার সন্তানকে গান শুনিয়ে ঘুম পাড়ায়, সন্তান তার মায়ের উপস্থিতি বুঝতে পারে। মায়ের গান শুনে সে তখন নিশ্চিন্তে ঘুমোতে পারে। এভাবে মা ও সন্তানের সম্পর্ক আরও গভীর হয়ে ওঠে।

২. শিশুর মানসিক বিকাশ ঘটায়

ঘুমপাড়ানি গান শিশুর মানসিক বিকাশ ঘটাতে সাহায্য করে। এটি শিশুর মস্তিষ্কের বিভিন্ন অংশকে উত্তেজিত করে যা মানসিক বিকাশ ঘটায়। এছাড়া বাচ্চার গানের মাধ্যমে ভিন্ন ভিন্ন ধ্বনির মধ্যে যে পার্থক্য রয়েছে তা বুঝতে শেখে।

৩. বাচ্চা ভালো ঘুমাতে পারে

গান বাচ্চাদের তাড়াতাড়ি ঘুম পাড়াতে সাহায্য করে। ঘুম গাঢ় হয়। খেয়াল করে দেখবেন, অনেক সময় ঠিকঠাক ঘুম না হলে বাচ্চারা কান্নাকাটি করে। তাই দুষ্টু সোনাকে ঘুম পাড়াতে ম্যাজিকের মতো কাজ করে ঘুমপাড়ানি গান।

৪. ভাষার উপর বাচ্চার দখল বাড়ায়

ঘুমপাড়ানি গান বাচ্চার ভাষা শেখার ক্ষমতা বাড়ায়। ধীরে ধীরে ওরা গানের শব্দ মনে রাখতে শেখে এবং সঠিক সময় তার প্রয়োগ করতে শুরু করে।

৫. শিশুর মনের ভয় দূর করে

মায়ের মুখে গান শুনতে শুনতে বাচ্চারা নিশ্চিন্তে ঘুমাতে পারে। মা যে পাশেই আছে এই অনুভূতি ওদের মনে সাহস জোগায়। যা ওদের সাহসী করে তোলে এবং ভবিষ্যতে যে কোনও প্রতিকূলতার সম্মুখীন হতে শেখায়।

জানুন পর্যাপ্ত ঘুমের অভাবে শিশুর কোন কোন সমস্যা হতে পারে

একটি শিশুর সার্বিক বিকাশের জন্য সঠিক ঘুম খুবই প্রয়োজনীয়। পর্যাপ্ত ঘুম না হলে লেপটিন নামক হরমোনের ক্ষরণ কমে যায়। এই হরমোন খিদে নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। এই হরমোনের ক্ষরণ কমে গেলে মস্তিষ্ক শরীরকে খিদে নিয়ন্ত্রণ করার সিগনাল পাঠাতে পারে না। ফলত নানারকম শারীরিক সমস্যা দেখা দেয়। শুধু তাই নয় এর কারণে মানসিক সমস্যাও সৃষ্টি হতে পারে। একনজরে দেখে নেওয়া যাক সেইসব সমস্যাগুলি –

  • মানসিক বিকাশ রোধ – সঠিক ঘুম না হলে শিশুর মস্তিষ্কের বিকাশ রোধ হতে পারে। যা ভবিষ্যতে আরও সমস্যা ডেকে আনতে পারে।
  • শারীরিক বৃদ্ধি হ্রাস – শিশুর বৃদ্ধির জন্য যে হরমোন প্রয়োজন তা কেবলমাত্র ঘুমের সময় ক্ষরণ হয়। ঘুম কম হলে এই হরমোনের ক্ষরণ কমে যায়। স্বাভাবিকভাবেই তখন শিশুর বৃদ্ধির হারও কমে।
  • ভারী শরীর বা ওবিসিটি – কম ঘুম শিশুদের মধ্যে এই সমস্যাটি ডেকে আনতে পারে। কম ঘুমের কারণে শরীরে লেপটিন হরমোনের ক্ষরণ কমে যায়। তখন খিদের উপর কোনও নিয়ন্ত্রণ থাকে না। বাচ্চারা প্রয়োজনের তুলনায় বেশি খায় ও ফলে ওজন বাড়তে থাকে।
  • রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে – কম ঘুমানোর কারণে স্বাভাবিকভাবেই শিশুর শরীর ক্লান্ত থাকে। রোগ প্রতিরোধ করার ক্ষমতা কমতে থাকে। অল্পতেই সর্দি-কাশি, জ্বরের মতো নানা শারীরিক সমস্যা দেখা দেয়।

শিশুর পর্যাপ্ত ঘুমের জন্য কার্যকরী কিছু টিপস

জন্মের পর একটি শিশুর সারাদিনে অন্তত ১০-১৮ ঘণ্টা ঘুম দরকার। বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সময়ের অঙ্কটা কমতে থাকলেও শিশুর পর্যাপ্ত ঘুম ভীষণ দরকার। আপনার সোনামণি যাতে সঠিক সময় ভালোভাবে ঘুমাতে পারে তারজন্য রইল কিছু টিপস –

  • দিনের বেলা বাচ্চাকে যতটা সম্ভব চনমনে থাকতে দিন। হাত পা ছুড়ে খেলা করতে দিন। শারীরিক পরিশ্রম হলে তবেই বাচ্চা রাতে তাড়াতাড়ি ঘুমিয়ে পড়বে, ঘুম গাঢ়ও হবে।
  • বিকেলের পর বাচ্চাকে এমন কিছু খেলাবেন না, যা ওদের আরও উত্তেজিত করতে পারে। কারণ একবার কোনও কিছু নিয়ে মেতে উঠলে বাচ্চাকে ঘুম পাড়ানো খুব কঠিন।
  • অবশ্যই প্রত্যেকদিন একই রুটিন মাফিক খাবার খাইয়ে বাচ্চাকে ঘুম পাড়ান। তবেই ধীরে ধীরে ওদের সেটি অভ্যাসে পরিণত হবে।
  • বাচ্চাকে নিরাপদ বোধ করতে দিন। বাড়িতে এমন পরিবেশ রাখুন যাতে বাচ্চার কোনও অসুবিধা না হয়।
  • খেয়াল রাখুন বাচ্চার ঘুমের সময় শোবার ঘরে যাতে কোনও বেশি আওয়াজ না যায়। প্রয়োজনে ঘরে হালকা আলো জ্বালিয়ে রাখুন। ঘর অন্ধকার থাকলে বাচ্চার ঘুম ভালো হয়।

বাংলায় ৩০টি জনপ্রিয় ঘুমপাড়ানি গান

১. ঘুম পাড়ানি মাসি পিসি

ঘুম পাড়ানি মাসি পিসি

মোদের বাড়ি এসো।

খাট নাই পালং নাই

আসন পেতে বসো।

বাটা ভরা পান দেবো

গাল ভরে খেয়ো।

বিন্নি ধানের খই দেবো

আঁচল পেতে নিও।

খোকার চোখে ঘুম নাই

ঘুম এনে দিও।

২. আয়রে পাখি লেজ ঝোলা

আয়রে পাখি লেজ ঝোলা

খোকাকে নিয়ে কর খেলা।

খাবি দাবি কলকলাবি

খোকাকে মোর ঘুম পাড়াবি।

৩. চাঁদ উঠেছে ফুল ফুটেছে

চাঁদ উঠেছে ফুল ফুটেছে

কদম তলায় কে ?

হাতি নাচছে, ঘোড়া নাচছে

সোনামণির বে।

৪. খোকন খোকন করে মায়

খোকন খোকন করে মায়

খোকন গেছে কাদের নায় ?

সাতটা কাকে দাঁড় বায়

খোকনরে তুই ঘরে আয়।

৫. খোকা ঘুমালে পাড়া জুড়ালো

খোকা ঘুমালে পাড়া জুড়ালো

বর্গী এলো দেশে।

বুলবুলিতে ধান খেয়েছে

খাজনা দেব কিসে?

ধান ফুরালো পান ফুরালো

খাজনার উপায় কী?

আর কটা দিন সবুর করো

রসুন বুনেছি।

৬. খোকা যাবে শ্বশুর বাড়ি

খোকা যাবে শ্বশুর বাড়ি

সঙ্গে যাবে কে?

ঘরে আছে হুলো বেড়াল

কোমর বেঁধেছে।

৭. খোকন খোকন ডাকপাড়ি

খোকন মোদের কার বাড়ি ?

আয়রে খোকন ঘরে আয়

দুধ মাখা ভাত কাকে খায়।

৮. পুঁটু নাচে কোন খানে?

পুঁটু নাচে কোন খানে?

শতদলের মাঝখানে।

সেখানে পুঁটু কী করে?

চুল ঝাড়ে আর ফুল পাড়ে।

৯. আয় আয় চাঁদ মামা

আয় আয় চাঁদ মামা

টিপ দিয়ে যা।

চাঁদের কপালে চাঁদ

টিপ দিয়ে যা।

ধান ভাঙলে কুড়ো দেব

মাছ কাটলে মুড়ো দেব,

কালো গরুর দুধ দেব

দুধ খাওয়ার বাটি দেব,

আয় আয় চাঁদ মামা

টিপ দিয়ে যা।

আয় আয় টিয়ে

নায়ে ভরা দিয়ে।

না নিয়ে গেল বোয়াল মাছে

তাই না দেখে ভোঁদর নাচে।

ওরে ভোঁদর ফিরে চা

খোকার নাচন দেখে যা।

১১. এসো এসো এসো ঘুমের পরী এসো

এসো এসো এসো ঘুমের পরী এসো

মায়ের সোনা টুকুর চোখে

আসন পেতে বসো।

১২. গোল করোনা গোল করোনা ছোটন ঘুমায় খাটে

গোল করোনা গোল করোনা ছোটন ঘুমায় খাটে

এই ঘুমকে কিনতে হল নওয়াব বাড়ির হাটে।

সোনা নয়, রূপা নয়, দিলাম মোতির মালা

তাই তো ছোটন ঘুমিয়ে আছে ঘর করে উজালা।

১৩. সূর্যিমামা নামল পাটে

সূর্যিমামা নামল পাটে

নিভল দিনের আলো।

চাঁদ মামাগো এবার তুমি

পিদিম খানি জ্বালো।

সূর্যিমামা নামলো পাটে

নিভল দিনের আলো।

খোকনকে মোর গান শোনালে

বুল-বুলিরা এসে।

শালিক পাখি গান শুনিয়ে

গেল ভালোবেসে।

ঠোঁট দুটি তার টুকটুকে লাল

পালক গুলো কালো।

চাঁদমামাগো এবার তুমি

পিদিমখানি জ্বালো।

মায়ের মুখে গল্প শুনে

খোকন বুঝি ভাবে,

কবে সে স্বপ্নপুরে

পরীর দেশে যাবে।

একটু পরে ঘুমের দেশে

যাবে খোকন ভেসে,

সাত-সাগরের পারেতে

সেই তেপান্তরের দেশে।

ঘুমের রানী তখন তারে

বেসো তুমি ভালো,

চাঁদমামাগো এবার তুমি

পিদিমখানি জ্বালো।

১৪. কে মেরেছে কে ধরেছে

কে মেরেছে কে ধরেছে

কে দিয়েছে গাল ?

তাইতো খুকু রাগ করেছে

ভাত খায়নি কাল।

১৫. হাট্টিমা টিম টিম

হাট্টিমা টিম টিম

তারা মাঠে পাড়ে ডিম।

তাদের খাড়া দুটো শিং

তারা হাট্টিমা টিম টিম।

১৬. আমরা দুটি ভাই

আমরা দুটি ভাই

শিবের গাজন গাই।

ঠাকুমা গেছেন গয়া কাশী

ডুগডুগি বাজাই।

১৭. আমার পুষি ভীষণ ভালো

আমার পুষি ভীষণ ভালো

মাছ খায় না মোটে।

দুধ দিয়ে ভাত মেখে দিলে

খায় সে চেটেপুটে।

১৮. তাঁতির বাড়ি ব্যাঙের বাসা

তাঁতির বাড়ি ব্যাঙের বাসা

কোলাব্যাঙের ছা,

খায় দায়, গান গায়

তাই-রে-নাইরে না।

১৯. সিংহমামা সিংহমামা

সিংহমামা সিংহমামা

মাংস খেতে চাও?

রাজহাস দেব তোমায়

হিংসা ভুলে যাও।

২০. ঘুম আয়রে আয় ঘুম আয়রে

ঘুম আয়রে আয় ঘুম আয়রে

কিছু স্বপ্ন নিয়ে আয়রে।

ঘুম আয়রে আয় ঘুম আয়রে

কিছু স্বপ্ন নিয়ে আয়রে।

জানার পথে দুঃখ অজানা

চেনা জীবনই অচেনা।

কত ক্লান্তি সারাদিন জুড়ে

আমায় কেবল কাঁদায়রে

ঘুম আয়রে আয় ঘুম আয়রে।

২১. আয় ঘুম আয়রে

আয় ঘুম আয়রে

মাধবী এ রাতে তন্দ্রাহারা চোখে।

ঘুম নেমে আয়

আয়রে ঘুম নেমে আয়।

আয় ঘুম আয়রে

মাধবী এ রাতে তন্দ্রাহারা চোখে।

ঘুম নেমে আয়রে

ঘুম নেমে আয়রে।

২২. আয় ঘুম যায় ঘুম

আয় ঘুম যায় ঘুম

দত্ত পাড়া দিয়ে।

দত্ত বুড়ি পান খেয়েছে

দোক্তা পাতা দিয়ে।

২৩. কিসের মাসি কিসের পিসি

কিসের মাসি কিসের পিসি

কিসের বৃন্দাবন?

এতদিনো জানল খুকু

মা বড় ধন।

২৪. নোটন নোটন পায়রাগুলি

নোটন নোটন পায়রাগুলি

ঝোটন বেঁধেছে।

ওপাড়া তে ছেলেমেয়ে

নাইতে নেমেছে।

দুই ধারে দুই রুই কাতলা

ভেসে উঠেছে।

কে দেখেছে কে দেখেছে

দাদা দেখেছে।

দাদার হাতে কলম ছিল

ছুঁড়ে মেরেছে,

উঃ বড্ড লেগেছে।

২৫. বৃষ্টি পড়ে টাপুর টুপুর নদে এল বান

বৃষ্টি পড়ে টাপুর টুপুর নদে এল বান,

শিব ঠাকুরের বিয়ে হল তিন কন্যা দান।

এক কন্যা রাঁধেন বাড়েন, এক কন্যা খান,

এক কন্যা রাগ করে বাপের বাড়ি যান।

২৬. দোল দোল দুলুনি

দোল দোল দুলুনি

রাঙা মাথায় চিরুনি,

বর আসবে যখনি

নিয়ে যাবে তখনি।

২৭. খোকা গেল মাছ ধরতে

খোকা গেল মাছ ধরতে

ক্ষীর নদীর কূলে,

ছিপ নিয়ে গেল কোলা ব্যাঙে

মাছ নিয়ে গেল চিলে।

২৮. ঝিলের জলে পদ্ম ভাসে

ঝিলের জলে পদ্ম ভাসে

মায়ের কোলে খোকন হাসে,

খোকন যাবে মামার বাড়ি

সঙ্গে নেবে রসের হাঁড়ি।

২৯. তাই তাই তাই মামা বাড়ি যাই

তাই তাই তাই মামা বাড়ি যাই

মামা বাড়ি ভারী মজা কিল চড় নাই।

মামি দিল দুধ ভাত দুয়ারে বসে খাই

তাই তাই তাই মামা বাড়ি যাই।

মামা বাড়ি ভারী মজা কিল চড় নাই

মামা এলো ছিপ নিয়ে মাছ ধরতে যাই।

তাই তাই তাই মামা বাড়ি যাই

মামা বাড়ি ভারী মজা কিল চড় নাই।

৩০. টিয়া টিয়া সবুজ টিয়া

টিয়া টিয়া সবুজ টিয়া

ঠোঁটটা তোমার লাল।

আজ তুমি যাও গো উড়ে

আবার এসো কাল।

এই বাচ্চাদের ঘুমপাড়ানি গানের তালিকায় যদি অন্য কোনো এইধরনের গান যোগ করতে চান তাহলে আমাদের জানাতে ভুলবেন না কিন্তু।

Thursday, July 22, 2021

প্রেমিকার সঙ্গে শারীরিক মিলনে আটকে গেল পুরুষাঙ্গ দেখুন মেয়েটির অবস্থা!

 




প্রেমিকার সঙ্গে শারীরিক মিলনে আটকে গেল পুরুষাঙ্বর্তমান সময়ে পরকীয়া সম্পর্ক বিকট আকার ধারণ করেছে। যা প্রায় প্রতিদিনই কোনো না কোনো মিডিয়ার খবরে পাওয়া যায়। স্ত্রী রয়েছে তবুও লুকিয়ে অন্য নারীর প্রেমে মজেছেন স্বামী। আবার স্বামী রয়েছে তবুও লুকিয়ে অন্য পুরুষের প্রেমে মজেছেন স্ত্রী। সম্প্রতি এমনই একটি ঘটনা ঘটেছে। তা হলো- স্ত্রী রয়েছে তবুও লুকিয়ে অন্য এক নারীর প্রেমে মজেছিলেন স্বামী। দীর্ঘদিন যাবত তার এই কাণ্ড চলছিল। কিন্তু, তার যে এমন পরিণতি হবে, তিনি হয়তো তা কল্পনাই করেন নি। সম্প্রতি সেই পরকীয়া প্রেমিকার সঙ্গে শারীরিক মিলনের সময় ঘটে গেল এই বিপত্তি। ভারতীয় একটি গণমাধ্যমের প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, কেনিয়ার একটি হোটেলে সম্প্রতি পরকীয়া প্রেমিকার সঙ্গে যৌন মিলনের সময় ওই ব্যক্তির পুরুষাঙ্গ আটকে যায়। জানা গেছে, ওই ব্যক্তি একটি হোটেল রুম ভাড়া করে তার প্রেমিকাকে নিয়ে আসেন। শারীরিক মিলন চলাকালীন তারা চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করেন এবং সাহায্যের জন্য অ্যালার্ম বাজান। পরে হোটেলের কর্মীরা সেখানে প্রবেশ করে দেখেন, তাদের যৌনাঙ্গ এমনভাবে আটকে গেছে যে তারা আলাদা হতে পারছিলেন না। পরে হোটেলর কর্মীরা চেষ্টা করেও তাদেরকে একে অপরের থেকে আলাদা করতে না পেরে ওঝা ডেকে আনেন। এক পর্যায় ঝাড়ফুঁক করে পরকীয়া জুটিকে আলাদা করার চেষ্টা করেন ওই ওঝা। কিন্তু, তিনিও ব্যর্থ হন। শেষ পর্যন্ত ওই যুগলদের চিকিৎসকের কাছে নিতে হয়। চিকিৎসকরা জানান, এই অবস্থার নাম ‘পেনিস ক্যাপটিভাস’। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, এমন ঘটনা বিরল, তবে নজিরবিহীন নয়। এর আগেও এক সঙ্গীতশিল্পী আর এক শিল্পীর স্ত্রীর সঙ্গে মিলিত হতে গিয়ে এই অবস্থায় পড়েছিলেন। উগান্ডায় ঘটা সেই ঘটনার ভিডিও চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছিল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।বর্তমান সময়ে পরকীয়া সম্পর্ক বিকট আকার ধারণ করেছে। যা প্রায় প্রতিদিনই কোনো না কোনো মিডিয়ার খবরে পাওয়া যায়। স্ত্রী রয়েছে তবুও লুকিয়ে অন্য নারীর প্রেমে মজেছেন স্বামী। আবার স্বামী রয়েছে তবুও লুকিয়ে অন্য পুরুষের প্রেমে মজেছেন স্ত্রী। সম্প্রতি এমনই একটি ঘটনা ঘটেছে। তা হলো- স্ত্রী রয়েছে তবুও লুকিয়ে অন্য এক নারীর প্রেমে মজেছিলেন স্বামী। দীর্ঘদিন যাবত তার এই কাণ্ড চলছিল। কিন্তু, তার যে এমন পরিণতি হবে, তিনি হয়তো তা কল্পনাই করেন নি। সম্প্রতি সেই পরকীয়া প্রেমিকার সঙ্গে শারীরিক মিলনের সময় ঘটে গেল এই বিপত্তি। ভারতীয় একটি গণমাধ্যমের প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, কেনিয়ার একটি হোটেলে সম্প্রতি পরকীয়া প্রেমিকার সঙ্গে যৌন মিলনের সময় ওই ব্যক্তির পুরুষাঙ্গ আটকে যায়। জানা গেছে, ওই ব্যক্তি একটি হোটেল রুম ভাড়া করে তার প্রেমিকাকে নিয়ে আসেন। শারীরিক মিলন চলাকালীন তারা চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করেন এবং সাহায্যের জন্য অ্যালার্ম বাজান। পরে হোটেলের কর্মীরা সেখানে প্রবেশ করে দেখেন, তাদের যৌনাঙ্গ এমনভাবে আটকে গেছে যে তারা আলাদা হতে পারছিলেন না। পরে হোটেলর কর্মীরা চেষ্টা করেও তাদেরকে একে অপরের থেকে আলাদা করতে না পেরে ওঝা ডেকে আনেন। এক পর্যায় ঝাড়ফুঁক করে পরকীয়া জুটিকে আলাদা করার চেষ্টা করেন ওই ওঝা। কিন্তু, তিনিও ব্যর্থ হন। শেষ পর্যন্ত ওই যুগলদের চিকিৎসকের কাছে নিতে হয়। চিকিৎসকরা জানান, এই অবস্থার নাম ‘পেনিস ক্যাপটিভাস’। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, এমন ঘটনা বিরল, তবে নজিরবিহীন নয়। এর আগেও এক সঙ্গীতশিল্পী আর এক শিল্পীর স্ত্রীর সঙ্গে মিলিত হতে গিয়ে এই অবস্থায় পড়েছিলেন। উগান্ডায় ঘটা সেই ঘটনার ভিডিও চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছিল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

২২ বছরের প্রবাসীর স্ত্রীকে বিয়ে করলো ১৪ বছরের তরুণ

২২ বছরের প্রবাসীর স্ত্রীকে বিয়ে করলো ১৪ বছরের তরুণ

 ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজে’লার রুপসদী দক্ষিণ বাজারের কবিরাজ হোসেন মিয়ার ছেলে ১৪ বছরের তরুন হাসান।ভালোবাসে প্রতিবেশী দিনমজুর সফর আলীর ২২ বছরের মেয়ে খাদিজা বেগমকে ।খাদিজার বাবা মনের বি’রু’দ্ধে এক প্রবাসীর সাথে বিয়ে দেয়গত ২ বছর আগে।

কিন্তু, বিয়ের পরও তাদের প্রেম-ভালোবাসার কোন ঘা’টতি ছিলো না। একে অন্যকে ভালবাসতো।সম্প্রতি খাদিজা-হাসানের আগের তোলা প্রেমের ছবি ফেসবুকে ভা’ইরাল হয়’ গোটা উপজে’লায়।তখন বাধ্য হয়ে খাদিজার বাবা থা’নায় অ’ভিযো’গ করেন। পু’লিশ আসে।

এলাকাবাসীর অনুরো’ধে হাসান’কে শর্ত’ দিয়ে ছেড়ে দেয় পু’লিশ। শেষে গত বুধবার তাদের বিয়ে হয়। বিয়ের আগে খাদিজার আগের স্বামীকে সে ডিভোর্স দেয়।এ বি’ষয়ে বাঞ্ছারামপুর মডেল থা’না সূত্র জানায়, ‘খাদিজার পিতা সফর আলী লিখিত অ’ভিযোগ করলে আমর’া তাকে উ’ত্ত’ক্তের অ’ভিযো’গে গ্রে’ফতার করতে গেলে, পরে এলাকাবাসী তাদের মধ্যে সমঝোতার অ’নুরো’ধে ছেড়ে দেই। গত ১৮ জুলাই তাদের বিয়ের পর, মুঠোফোনে অসম বয়সী দ’ম্পত্তি জানায়, এলাকাবাসী আমা’দের নতুন জীবনের জন্য দোয়া করবেন। 

আমর’া যেনো সুখী হই।এ বি’ষয়ে বাঞ্ছারামপুর মডেল থা’না সূত্র জানায়,‘খাদিজার পিতা সফর আলী লিখিত অ’ভিযো’গ করলে আমর’া তাকে উত্তক্তের অ’ভিযোগে গ্রে’ফতার করতে গেলে, পরে এলাকাবাসী তাদের মধ্যে সমঝোতার অনু’রো’ধে ছেড়ে দেই। গত ১৮ জুলাই তাদের বিয়ের পর, মুঠোফোনে অসম বয়সী দ’ম্পত্তি জানায়, এলাকাবাসী আমা’দের নতুন জীবনের জন্য দোয়া করবেন। আমর’া যেনো সু’খী হই।

Wednesday, July 14, 2021

Checking the proxy and the firewall Running Windows Network Diagnostics ,unexpectedly closed the connection.This Site Can't Be Reached ERR_CONNECTION_REFUSED in Google chrome- Fixed easily


Here's what to do if Chrome isn't allowing you to view Microsoft websites

If you've recently noticed that Google Chrome doesn't allow you to view select Microsoft websites, you're not alone. Apparently, several users are experiencing an issue that occurs when they try to visit official Microsoft websites. When attempting to do so, Chrome throws a "This site can't be reached (www.microsoft.com unexpectedly closed the connection)" error, asking users to check their internet connections or reconfigure proxy and firewall settings. While both of these methods do not work, there is another easy fix.

Sunday, July 4, 2021

CS, RS, SA, PS, BS জরিপ কি?ভূমি জরিপ বা খতিয়ান চেনার সহজ উপায় জেনে নিন ৫ মিনিটেই জমির আরএস খতিয়ান

 রেকর্ড বা জরিপ প্রচলিতভাবে খতিয়ান বা স্বত্ত্বলিপি বা Record of Rights (RoR) নামেও পরিচিত। রেকর্ড বা জরিপের ভিত্তিতে ভূমি মালিকানা সম্বলিত বিবরণ খতিয়ান হিসেবে পরিচিত, যেমন CS খতিয়ানRS খতিয়ান, ইত্যাদি। “সিএস” হলো Cadastral Survey (CS) এর সংক্ষিপ্ত রূপ।



CS, RS, SA, PS, BS, সিটি জরিপ, দিয়ারা জরিপ কি? ভূ-সম্পত্তির জন্য কতটা প্রয়োজন ?

রেকর্ড বা জরিপ প্রচলিতভাবে খতিয়ান বা স্বত্ত্বলিপি বা Record of Rights (RoR) নামেও পরিচিত। রেকর্ড বা জরিপের ভিত্তিতে ভূমি মালিকানা সম্বলিত বিবরণ খতিয়ান হিসেবে পরিচিতযেমন CS খতিয়ানRS খতিয়ান, ইত্যাদি।সিএসহলো Cadastral Survey (CS) এর সংক্ষিপ্ত রূপ।

Friday, July 2, 2021

গুগলে যে ৫ জিনিস সবচেয়ে বেশি সার্চ করে পুরুষরা

গুগলে যে ৫ জিনিস সবচেয়ে বেশি সার্চ করে পুরুষরা

 

মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্বজুড়ে মানুষের জীবনযাত্রায় পরিবর্তন এসেছে। স্বাভাবিক জীবনে নতুনভাবে বাঁচতে শিখছে মানুষ। বাস্তবকে গ্রাস করছে ভার্চ্যুয়াল জগৎ। তথ্যপ্রযুক্তির উৎকর্ষের এই সময়ে অনেকের কৌতুহলের বিষয়ের সমাধানের অন্যতম মাধ্যম গুগল। 

সার্চ ইঞ্জিন গুগলের অন্ধভক্তের সংখ্যা নেহাত কম নয়। তা সে স্বাস্থ্য বিষয়ে কোনো জিজ্ঞাসা হোক বা ঘর সাজানো। অনেকেই দিন-প্রতিদিন প্রতিটা সমস্যা সমাধানের জন্য গুগলের সাহায্য নিয়ে থাকেন। frommars.com-এর একটি গবেষেণায় উঠে এসেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য। 

how to do not sending message gp number bd

 


আমি অনেক দিন ধরেই Gp Sim ইউজ করি | অন্য সব Sim বন্ধ রেখেছি Offer পাবার জন্য | কিন্তু কয়েকদিন ধরে মাথা অনেক গরম ছিল | দেখি আমার Sim থেকে অন্য কোনো No. এ Msg Send করতে পারছিলাম না | কিন্তু, 400 Sms কেনা ও আছি | অন্য Sim এনে আমার Phone এ দেখি কাজ করছে | আমার Gf তো রাগে অস্থির | মনে পড়ল যে কদিন আগে , Factory Mood এ গিয়ে Manually 4G net আনতে চাইছিলাম তাই এই Bug তৈরী হয়েছিল |

তাই শেষমেষ এই Problem Fix করতেই হলো |
### যেভাবে Fix করবেন:-
Step 1. Msg Settings এ যান 


Step 2. Text Msg Option সিলেক্ট করেন |

Step 3. Msg Service Sender Option এ এই No. টি
+8801700000600 Type করে Save করেন |

আমার Problem আমি এভাবেই Fix করেছি | তাই Fix হওয়া মাত্রই পোস্ট টি Publish করলাম |
### Android Root + Any Problem Fix করতে আমার Fb তে মেসেজ করবেন | 



আপনার নাম্বার থেকে এসএমএস সেন্ড করার সমস্যাটি সমাধান করার জন্য নিচের নির্দেশনা অনুসরণ করতে অনুরোধ করছিঃ

1. Checked the SMS Center number (SMSC) in SMS settings which is +8801700000600.

2. Delete the SMS Center number and reset.

3. Set the GP SMS Center number as default SMS Center (the option and the option name may vary with handsets)

4. Set SMS Format as "Text Mode".

5. Finally check by changing handset.

আশা করছি, সমস্যাটি আর হবে না।

দুঃখিত Shorif, আপনার সমস্যাটির জন্য. 

বর্তমানে যে সকল হ্যান্ডসেটে বাংলা এসএমএস সাপোর্ট করে শুধুমাত্র সেই সকল হ্যান্ডসেট ব্যবহারকারী নাম্বারে আমাদের এই এসএমএস গুলো পাঠানো হচ্ছে।তবে, আপনি যদি কোন সমস্যা পেয়ে থাকেন তাহলে আপনার নম্বরটি চেক না করে নির্দিষ্ট সমস্যা এর বিষয়ে সঠিক কোন মতামত দেয়া সম্ভব হচ্ছে না। আপনার সম্পৃক্ত নম্বরটিসহ এই ফ্যান পেজ এ "Message" করে বিস্তারিত জানাতে পারেন। তাহলে আশা করছি এই বিষয়ে আপনাকে সঠিক ফিডব্যাক দেয়া সম্ভব হবে। এছাড়া নম্বরটির যাচাই এর জন্য নিচের তথ্যগুলো সাথে নিয়ে অনুগ্রহ করে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন।

সিমের মালিকের নাম (সাবস্ক্রিপসন পেপার অনুযায়ী):
বাবার নাম (সাবস্ক্রিপসন পেপার অনুযায়ী):
মাতার নাম (সাবস্ক্রিপসন পেপার অনুযায়ী):
FnF নাম্বার (সর্বনিম্ন ২টি):
শেষ রিচার্জ (কত টাকা, সময় এবং তারিখ):

NB: আর একটি বিষয়, এখন থেকে যেকোনো নম্বর সংশ্লিষ্ট জিজ্ঞাসা /

Popular Posts

Update Posts